1. admin@dainikkhoborchitra.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:০০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কলারোয়া উপজেলার ১০ টি ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান হলেন যারা বৃষ্টি ভেজা রাত পুলিশের চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে কেশবপুরে টাকা হাতিয়ে নেওয়া প্রতারক গ্রেফতার মাগে হিতে’র শিল্পী বাংলাদেশে এসে গান গাইতে চান কেশবপুরে স্কাউটসের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল অনুষ্ঠিত গৌরীঘোনায় সরকারী পরিষেবায় দলিত জনগোষ্ঠীকে অন্তর্ভুক্তি বিষয়ক এডভোকেসী সভা অনুষ্ঠিত কেশবপুরে দলিত জনগোষ্ঠীর জীবন-মান উন্নয়নে ১০ দিন ব্যাপী হাউজ ওয়ারিং প্রশিক্ষণ শুরু কেশবপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত জমে উঠেছে দিঘলিয়া উপজেলার ইউ.পি.নির্বাচন মনিরামপুর ছাত্রলীগের উদ্যোগে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সচেতনতামুলক সভা ও মাস্ক বিতারণ

বন্ধুত্বের বন্ধন

দৈনিক খবরচিত্র ডেস্ক
  • সময় : শুক্রবার, ১৩ আগস্ট, ২০২১
  • ১৬৩ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আসিফ উজ্জামান নাহিদ (পবিপ্রবি প্রতিনিধি)

বন্ধুত্ব, খুব বড় একটা শব্দ নয়। কিন্তু এর ব্যপ্তি ও গভীরতা সীমাহীন। বন্ধুত্বের নেই কোনো বয়স, নেই কোনো সময়সীমা। বন্ধুত্বের বন্ধনে থাকে না কোনো স্বার্থ। যদি এর অভিধানিক অর্থ খুঁজতে যাই, তাহলে এর অর্থ দাঁড়ায়
সৌহার্দ্য বা কল্যাণকামী ব্যক্তি। বন্ধু মানে আস্থা, বন্ধু মানে নির্ভরতা। বন্ধু মানে ভালোবাসা, যে ভালোবাসা হয়ে থাকে নিঃস্বার্থ। বন্ধুত্বের সম্পর্ক নিয়ে লেখা হয়েছে হাজারো কবিতায়, গল্পে, চিত্রকর্মে, কখনো স্মৃতি হয়ে জমা হয়েছে স্থিরচিত্রে আবার কখনোবা গানে। এইজন্যই হয়তোবা মানুষের মুখে মুখে ফিরে বন্ধুকে নিয়ে অসংখ্য গান। আবার অনেকেই হয়তো আজ মনের অজান্তে গেয়ে উঠবেন-

দেখা হবে বন্ধু কারণে আর অকারণে,
দেখা হবে বন্ধু, চাপা কোনো অভিমানে,
দেখা হবে বন্ধু সাময়িক বৈরীতায়, অস্থির অপারগতায়!

তবে তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে ডিজিটাল বন্ধুর যেন কমতি নেই। বিভিন্ন সোস্যাল মিডিয়াগুলোকে একেকটা বন্ধুদের সাম্রাজ্য বললেও ভুল হবে না। কিন্তু সময়ের বিবর্তনে এসব ডিজিটাল বন্ধুদের ভীরে আসল বন্ধুরা কি হারিয়ে গেছে? আজকে এমনি একটি ঘটনা পাঠকবৃন্দদের মাঝে তুলে ধরার চেষ্টা করবো।

ঘড়ির কাঁটা তখন প্রায় বেলা বারোটা ছুই ছুই। রাস্তার পাশে দাড়িয়ে আনমনে কিছু একটা ভাবছি। হঠাৎ চোখের দৃষ্টি কেঁড়ে নিলো একদল যুবকের কর্মকান্ডে। খানিকটা দূর থেকে বেশ বুঝা যাচ্ছিলো না। কৌতুহলবসত এগিয়ে গেলাম তাদের দিকে। কাছে গিয়ে উপলব্ধি করতে পারলাম জন পাঁচেক যুবক দোকানের বাইরে দাঁড়িয়ে সমুচা খাচ্ছে এবং একেকজন একেকজনকে ইশারায় কিছু একটা বলাবলি করছে। মনে হচ্ছিলো হাজার বছরের জমানো সব কথাগুলো একেকজন উপস্থাপন করছে। তৎক্ষনাৎ বুঝতে পারলাম তারা বাক-প্রতিবন্ধী এবং এটাও বুঝতে পারলাম তারা একেকজন খুব ভালো বন্ধু। তাদেরকে নিয়ে আমার কৌতূহল যেন বেড়েই চলছিলো। কিন্তু তাদের ভাষা বুঝতে আমি ব্যর্থ। যদিও ভাগ্য সহায় ছিলো। তাদের মধ্যে একজন খাতা-কলম দিয়ে তুলে দিলেন একেকজনের নাম। যার মধ্যে ছিলো হান্নান, এমরান ও কিসলু। পাশাপাশি স্থানীয় এক যুবকের কাছ থেকে জানতে পারলাম তাদের সম্পর্কে। একজন নয়, দুইজন নয় মোট বাইশজন বাক-প্রতিবন্ধী নিয়ে তাদের বন্ধুত্বের পাল।

এমনকি তাদের মধ্যে রয়েছে দলনেতা। যার নাম টিটু। বাক-প্রতিবন্ধীদের মধ্যে এমরান ইশারার মাধ্যমে জানান, তারা সবাই খুব ভালো বন্ধু। প্রতিনিয়তই তারা অাড্ডা দেয়, একসাথে গল্প করে এবং ঘুরতে যায়। তারা কিভাবে এক জন আরেকজনের সাথে যোগাযোগ করেন এই বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে কিসলু ইশারার মাধ্যমে জানান, তাদের প্রত্যেকরই রয়েছে স্মার্টফোন। যেটা দিয়ে একে অপরের সাথে যোগাযোগ করে থাকে। তিনি আরও জানান তারা মাঝে মাঝে গ্রুপে ভিডিও কলের মাধ্যমেও আড্ডা দিয়ে থাকেন। বেশ কিছুক্ষন তাদের সাথে গল্প করার মাঝেই সহজ-সরল মানুষগুলোর সাথে মিশে গিয়েছিলাম।

আর তারাও যেন আপন করে নিয়েছিলো। এর মাঝে আতেথীয়তারও যেন কোনো অংশে কমতি ছিলো না। সমুচা, কোল্ড ড্রিংকস সবার মাঝে ভাগাভাগি করে দেয়া সহ হাসি-ঠাট্টায় ব্যস্ত ছিলেন তারা। পাশাপাশি স্বন্ধিক্ষনটুকু স্মৃতিচারন করে রাখতে সেলফি এবং একসাথে ছবি তুলতেও ভুল করেননি। তাদের সাথে কিছুক্ষণ গল্প করার পর একটা কথা খুব মনে পড়ছিলো পৃথিবীর সকল জীবের নিজস্ব ভাষা রয়েছে, যেটা খুব কাছ থেকে আজকে উপলব্ধি করতে পেরেছি। আরও মনে হচ্ছিলো তাদের এই বন্ধুত্বের সম্পর্কর সমাপ্তি নেই, এ যেন এক আমরণ সম্পর্ক।

সর্বপরি এটাই কামনা করি ভালো থাকুক সব প্রিয় বন্ধুরা। আজীবন টিকে থাকুক বন্ধুত্বের বন্ধন।


সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর