1. admin@dainikkhoborchitra.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কলারোয়া উপজেলার ১০ টি ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান হলেন যারা বৃষ্টি ভেজা রাত পুলিশের চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে কেশবপুরে টাকা হাতিয়ে নেওয়া প্রতারক গ্রেফতার মাগে হিতে’র শিল্পী বাংলাদেশে এসে গান গাইতে চান কেশবপুরে স্কাউটসের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল অনুষ্ঠিত গৌরীঘোনায় সরকারী পরিষেবায় দলিত জনগোষ্ঠীকে অন্তর্ভুক্তি বিষয়ক এডভোকেসী সভা অনুষ্ঠিত কেশবপুরে দলিত জনগোষ্ঠীর জীবন-মান উন্নয়নে ১০ দিন ব্যাপী হাউজ ওয়ারিং প্রশিক্ষণ শুরু কেশবপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত জমে উঠেছে দিঘলিয়া উপজেলার ইউ.পি.নির্বাচন মনিরামপুর ছাত্রলীগের উদ্যোগে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সচেতনতামুলক সভা ও মাস্ক বিতারণ

বিএসএফ কৃতর্ক ভারতীয় ট্রাক ড্রাইভারদের হয়রানির প্রতিবাদে আমদানি বাণিজ্য বন্ধের ৮ ঘণ্টা পর চালু

দৈনিক খবরচিত্র ডেস্ক
  • সময় : বুধবার, ১৮ আগস্ট, ২০২১
  • ৪৬ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ইমামুল বাসার, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

৮ ঘন্টা বন্ধ থাকার পর বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে দু‘দেশের মধ্যে আমদানি বাণিজ্য সচল হয়েছে। ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) কর্তৃক ভারতীয় ট্রাক ড্রাইভারদের হয়রানির প্রতিবাদে সোমবার (১৬ আগস্ট) সকাল ৮টা থেকে বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে দু‘দেশের মধ্যে আমদানিবন্ধ করে দেয় ভারতীয় পেট্রাপোল বন্দর ব্যবহারকারীরা। পরে প্রশাসনের সাথে আলোচনা শেষে বেলা ৪টা থেকে পুনরায় আমদানি বাণিজ্য কার্যক্রম শুরু হয়। সকাল থেকে পণ্য আমদানি বন্ধ থাকায় পেট্রাপোল বন্দরে ব্যাপক পণ্যজটের সৃষ্টি হয়। তবে বাংলাদেশ থেকে রফতানি বাণিজ্যসহ বন্দরে লোড আনলোড প্রক্রিয়া স্বাভাবিক ছিল।

ভারতের পেট্রাপোল সিএন্ডএফ স্টাফ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক কার্ত্তিক চক্রবর্তী জানান, দীর্ঘদিন ধরে রফতানি পণ্য নিয়ে বাংলাদেশের বেনাপোল বন্দরে প্রবেশের আগে জয়ন্তীপুর বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা ট্রাকগুলো ঘন্টার পর ঘন্টা তল্লাশি করে আসছে। ফলে সড়কে তীব্র যানজটসহ রফতানি কাজ ব্যাহত হচ্ছিল। এ নিয়ে ট্রাক চালকসহ বন্দর ব্যবহারকারীরা কয়েক দফা আন্দোলন বিক্ষোভ করলে বিএসএফের পক্ষ থেকে মৌখিক ভাবে বলা হয়েছিল সোমবার (১৬ আগস্ট) থেকে এক একটা ট্রাক দুুই থেকে তিন মিনিটের বেশি তল্লাশি করবে না। এ কথায় কেউ আশ^স্ত হতে না পেরে লিখিত আদেশের দাবিতে সকাল থেকে এ পথে আমদানি বন্ধ করে দেয় ভারতীয় বন্দর ব্যবহারকারীরা। পেট্রাপোল বন্দরের তিন নং গেটের সামনে মাইক টাঙিয়ে সমাবেশ করেন তারা। পরে ফলপ্রুশু আলোচনা শেষে লিখিত আদেশ দেওয়ার পর আমদানি কার্যক্রম সচল হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বেনাপোল বন্দরের উপ পরিচালক (ট্রাফিক) মামুন কবির তরফদার জানান, বেনাপোল দেশের বৃহত্তম স্থল বন্দর। স্থল পথে ভারত থেকে সবচেয়ে বেশী পণ্য আমদানি হয়ে থাকে। প্রতিদিন বেনাপোল বন্দর দিয়ে ৪শ‘ থেকে সাড়ে ৪শ‘ পণ্যবাহী ভারতীয় ট্রাক বেনাপোল বন্দরে প্রবেশ করে। যার অধিকাংশই শতভাগ রফতানিমূখি গার্মেন্টস শিল্পের কাঁচামাল। তাছাড়া ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে এমনিতেই সবসময় পণ্যজট লেগেই থাকে। একদিন আমদানি বন্ধ থাকলে পেট্রাপোল বন্দরে পণ্যজট ব্যাপক আকার ধারন করে।

বেনাপোল কাস্টমসের চেকপোস্ট কার্গো শাখার রাজস্ব অফিসার স্বপন কুমার জানান, বেনাপোল বন্দর দিয়ে সকাল থেকে আমদানি বাণিজ্য বন্ধ ছিল। তবে রফতানি বাণিজ্য সচল আছে। ওপারে ফলপ্রুশু আলোচনার পর বেলা ৪টা থেকে পণ্য নিয়ে ভারতীয় ট্রাক আমাদের বন্দরে আসছে। এখন আমদারি-রফতানি বাণিজ্য স্বাভাবিক রয়েছে।


সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর